Loading...
You are here:  Home  >  আমেরিকা  >  Current Article

জর্জিয়া সিনেট নির্বাচনে বাংলাদেশি শেখ রহমান বিজয়ী

image-123559

যুক্তরাষ্ট্রের জর্জিয়া অঙ্গরাজ্যের ডিস্ট্রিক্ট-৫ নির্বাচনী এলাকা থেকে স্টেট সিনেটর প্রার্থী হিসেবে প্রাইমারি নির্বাচনে বাংলাদেশ-আমেরিকান ডেমোক্র্যাট শেখ রহমান চন্দন বিজয়ী হয়েছেন। তিনি বাংলাদেশের কিশোরগঞ্জ জেলার সন্তান। গত ১৫ মে মঙ্গলবার এই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। আর এই নির্বাচনে বিজয়ের মধ্য দিয়ে শেখ রহমান চন্দন যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে প্রথম ও একমাত্র বাংলাদেশি হিসেবে স্টেট সিনেটর নির্বাচিত হতে চলেছেন। খবর ইউএনএ’র।

জর্জিয়া থেকে প্রাপ্ত খবরে জানা গেছে, জর্জিয়ার নরক্রস, লিলবার্ন ও লরেন্সভিল শহর নিয়ে ষ্টেট সিনেট ডিষ্ট্রিক্ট-৫ গঠিত। এই আসনে গত ৮ বছর ধরে ডেমোক্র্যাটিক পার্টির কার্ট থম্পসন সিনেটর হিসেবে নির্বাচিত হয়ে আসছিলেন। প্রাইমারী নির্বাচনে হেরে গিয়ে দীর্ঘদিন পর তিনি তার সিনেটর পদটি হারাতে যাচ্ছেন।

নির্বাচনে ওই এলাকায় রিপাবলিকান পার্টির কোনো প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেননি। শেখ রহমান চন্দন ৬৮% ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। আগামী নভেম্বরের ডেমোক্র্যাটিক পার্টির পক্ষে তিনিই জাতীয় নির্বাচনে প্রথম বাংলাদেশি প্রার্থী হিসেবে লড়বেন এবং জয়ী হবেন বলে আশা করা হচ্ছে।

নির্বাচনে বাংলাদেশি শেখ রহমান চন্দন ৪,০০২ ভোট পান। তার একমাত্র প্রতিদ্বন্দ্বী ডেমোক্র্যাটিক পার্টির অপর প্রতিদ্বন্দ্বী এবং বর্তমান ষ্টেট সিনেটর কার্ট থম্পসন পেয়েছেন দুই হাজার একশ সতেরো ভোট।

প্রাইমারি নির্বাচনে বিজয়ের পর এক প্রতিক্রিয়ায় শেখ রহমান এ বিজয়কে ‘বাংলাদেশিদের বিজয়’ বলে উল্লেখ করে বাংলাদেশি-এশিয়ান ভোটারসহ ডেমোক্র্যাটিক পার্টির সংগঠক ও সদস্যদের কৃতজ্ঞতা জানান।

বিজয়ী শেখ রহমান চন্দন-এর ক্যাম্পেইন ম্যানেজার আলী হোসেন ইউএনএ প্রতিনিধিকে জানান, জর্জিয়ার অঙ্গরাজ্যের ডিস্ট্রিক্ট-৫ এর সিনেটর আসনটিতে তার বিজয় সহজ ছিলো না। কিন্তু সবার ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টা আর জনগণের অধিকার প্রতিষ্ঠায় প্রার্থীর নির্বাচনী এজেন্ডা বিশেষ করে অস্ত্র নিয়ন্ত্রণে তার অঙ্গীকারের কথা জনগণ গ্রহণ করেছে।

নিউইয়র্কের ইউএস কংগ্রেসওম্যান গ্রেস মেং এই প্রাইমারি নির্বাচনে শেখ রহমান চন্দনকে সমর্থন করেছিলেন। এছাড়া নিউইয়র্ক ও জর্জিয়া সহ বিভিন্ন এলাকার বিপুল সংখ্যক বাংলাদেশি তাকে সমর্থণ এবং তার নির্বাচনী ব্যয়ের জন্য ফান্ড রেইজিং করেন।

    Print       Email

You might also like...

6E9CDCB1-BD6A-4EF0-B757-0FA600FF9A44

মালয়েশিয়া থেকে ফিরতে পারে লক্ষাধিক বাংলাদেশি

Read More →