Loading...
You are here:  Home  >  এশিয়া  >  Current Article

জাকির নায়েকের সাথে দেখা করলেন মাহাথির মুহাম্মদ

331278_184

মালয়েশিয়া জাকির নায়েককে ভারতে পাঠাবে না ঘোষণা দেয়ার একদিন পর তার সাথে দেখা করলেন মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ। ভারতের হাতে জাকির নায়েককে সোপর্দ করার দাবি জানানো হলে তা খারিজ করে দেয় মালয়েশিয়া।

মালয়েশিয়ান গণমাধ্যমের বরাতে জানা যায়, জাকির নায়েককে ভারতে পাঠানো হবে না বলে স্পষ্ট জানিয়ে দেন খোদ মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী। তিনি জানান, জাকির মালয়েশিয়ায় আসার পর কোনও সমস্যা তৈরি হয়নি। তাই তাকে এদেশে স্থায়ী বসবাসের অনুমতি দেওয়া হয়েছে বলে শুক্রবার এক সাংবাদিক সম্মেলনে জানান তিনি। এরপর শনিবার ইসলামি চিন্তাবিদের সাথে দেখা করেন মাহাথির মোহাম্মদ। স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমেও দুজনের একত্রে ছবি দেখা যায়।

এর আগে শুক্রবার এক সংবাদ সম্মেলনে মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী ডা. মাহাথির মোহাম্মাদ বলেন, ভারত সরকারের অনুরোধ সত্ত্বেও খ্যাতিমান ইসলামি বক্তা জাকির নায়েককে ভারতে ফেরত পাঠানো হবে না।

এর একদিন আগেই ভারত জানিয়েছে, তারা জাকির নায়েককে ফেরত পেতে মালয়েশিয়ার কাছে অনুরোধ করেছিলো। এক সাংবাদিকের প্রশ্নের জবাবে মাহাথির বলেন, যতক্ষণ তিনি কোনও সমস্যা তৈরি করছেন না, ততক্ষণ আমরা তাকে ফেরত পাঠাবো না। কারণ তাকে স্থায়ীভাবে বসবাসের অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

যদিও আগের দিন আগে ভারতীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ে মুখপাত্র রাভিশ কুমার বলেছিলেন, ‘এই পর্যায়ে আমাদের অনুরোধ মালয়েশিয়ার বিবেচনায় রয়েছে। কুয়ালালামপুরে আমাদের হাই কমিশন বিষয়টি নিয়ে নিয়মিত মালয়শিয়া কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করছে।’
ভারতীয় সংবাদ মাধ্যমে জাকির নায়েককে ফেরত পাঠানোর সংবাদ প্রকাশের পর তিনি এটিকে ভিত্তিহীন বলে উড়িয়ে দিয়েছেন। জাকির নায়েক বলেছেন, ‘এখবর সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন ও ভুয়া। অন্যায় বিচার থেকে নিরাপদ বোধ না করার পর্যন্ত দেশে ফেরার কোন পরিকল্পনা নেই আমার’।

৫২ বছর বয়সী জাকির নায়েক এক বছরেরও বেশি সময় ধরে দেশের বাইরে অবস্থান করছেন। গত বছর ঢাকার গুলশানে হলি আর্টিজান রেস্তোরায় উগ্রবাদীদের হামলায় জড়িতদের অন্তত দুইজন টেলিভিশন বক্তা জাকির নায়েককে অনুসরণ করতো এমন খবর প্রকাশের পর তোলপাড় শুরু হয়। ওই বছর তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হলে ভারত ছেড়ে যান তিনি। কিছুদিন সৌদি আরবে থাকার পর মালয়েশিয়ায় স্থায়ীভাবে বসবাস শুরু করেন। মালয়শিয়া সরকার তাকে স্থায়ীভাবে বসবাসের অনুমতি দিয়েছে। ভারতের সংবাদমাধ্যমের খবর অনুযায়ী এই বছরের জানুয়ারিতে তাকে ফেরত পাঠাতে মালয়েশিয়াকে অনুরোধ জানায় ভারত। দেশ দুটির মধ্যে প্রত্যার্পণ চুক্তি রয়েছে।

বুধবার ভারতীয় কয়েকটি সংবাদমাধ্যমে খবর প্রকাশিত হয়,ওই দিনই তাকে মালয়েশিয়া থেকে ভারত ফিরিয়ে আনা হবে। এমন খবর প্রকাশিত হওয়ার পর জনসংযোগ কর্মকর্তার মাধ্যমে দেওয়া এক বিবৃতিতে জাকির নায়েক বলেন, আমার ভারতে ফিরে আসার খবর ভিত্তিহীন ও মিথ্যা। অবিচার থেকে নিরাপদবোধ করার আগ পর্যন্ত ভারতে ফেরার কোনও পরিকল্পনা আমার নেই।

২০১৬ সালের ডিসেম্বরে জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে মামলা করা হয় ভারতে। জানুয়ারিতে তার নামে জারি হয় সমন। এরপর আরও তিনবার সমন জারি হয় তার বিরুদ্ধে। তবে জাকির নায়েক ভারতে ফেরেননি। ভারত সরকার তার প্রতিষ্ঠিত গবেষণা প্রতিষ্ঠান ও তার সাথে সংশ্লিষ্ট একাধিক প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দিয়েছে।

    Print       Email

You might also like...

dav

থাইল্যান্ডে বাংলাদেশিদের ব্যবসা ও বিয়ে

Read More →