Loading...
You are here:  Home  >  এক্সক্লুসিভ  >  Current Article

ঢাকায় নির্মিত হচ্ছে রাজউকের ২৯ তলা ‘গ্রিন বিল্ডিং’

green-BG20170807154358
গাছপালার সমারোহ ও কম বিদ্যুতে পরিচালনা করা যায় এমন পরিবেশ বান্ধব ২৯ তলা বিশিষ্ট গ্রিন অফিস ভবন নির্মাণ করা হবে মহাখালীতে। যা পরবর্তী সময়ে প্রধান কার্যালয় হিসেবে ব্যবহার করবে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (রাজউক)।

দিলকুশা থেকে পর্যায়ক্রমে এই গ্রিন অফিসে স্থানান্তর হবে রাজউক’র সকল কার্যক্রম। আর সরকারিভাবে এটাই হবে প্রথম গ্রিন অফিস। এই বিশাল অফিসের মধ্যে থাকবে গাছপালা ও জলাধার।

আন্তর্জাতিক সকল মানদন্ড বজায় রেখে এটা নির্মিত হবে। সৌর বিদ্যুতের আলো, এয়ার কন্ডিশন ব্যবস্থা, সমস্ত অফিসের তাপমাত্রার ব্যবস্থাও হবে আন্তর্জাতিক মানদন্ডে। এজন্য পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের গ্রিন অফিস দেখা হচ্ছে। এর মধ্যে থেকে উন্নত মানের একটা নকশা বেছে নেয়া হবে।

দুই দশমিক ০৮ একর জমির উপরে গড়ে উঠবে নতুন গ্রিন অফিস। এতে থাকবে তিনটি বেসমেন্ট ও ৫০০ গাড়ি পার্কিংয়ের ব্যবস্থা। প্রতি তলায় ২ হাজার ৫৯১ বর্গমিটার হিসেবে ভবনের মোট আয়তন হবে ৮০ হাজার ৩২২ বর্গমিটার। ইতোমধ্যেই ভবন নির্মাণের উন্নয়ন প্রকল্প প্রস্তাবনা (ডিপিপি) অনুমোদন করা হয়েছে।চলতি বছরের ডিসেম্বর থেকে গ্রিন অফিস নির্মাণের কাজ শুরু হবে। ২০২০ সাল পর্যন্ত এই গ্রিন অফিস নির্মাণ সম্পূর্ণ হবে। যেখানে নির্মাণ ব্যয় ৮০১ কোটি টাকা ধরা হয়েছে। উন্নত বিশ্বের ন্যায় সকল ধরণের সুযোগ সুবিধা থাকবে এই ভবনে।

জানা গেছে, প্রাথমিকভাবে ৩২ তলা ভবন নির্মাণের সিদ্ধান্ত হয়েছিলো। তবে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) অনুমোদিত উচ্চতা ৩৯৪ বর্গ ফুট। ফ্লোর টু ফ্লোর চার মিটার রেখে বেবিচক অনুমোদিত উচ্চতার মধ্যে সীমাবদ্ধ রেখে ভবনের তলার সংখ্যা কমিয়ে ২৯ করা হয়েছে।

রাজউকের প্রধান প্রকৌশলী (প্রকল্প ও ডিজাইন) এ এস এম রায়হানুল ফেরদৌস বলেন, আন্তর্জাতিক মানদন্ড বজায় রেখেই বহুতল বিশিষ্ট গ্রিন অফিস ভবন নির্মাণ করা হবে। ভবনের চারপাশে এবং ভেতরে থাকবে পরিমিত ছোট-বড় গাছপালা। স্বচ্ছ পানির জলাধার ও সোলার প্যানেলও থাকবে। রাতে ও দিনে কতটুকু বিদ্যুৎ ব্যবহার করা হবে কতটুকু সোলার ব্যবহার করা হবে সবই স্বয়ংক্রিয়ভাবে নিয়ন্ত্রণ করা হবে। সরকারিভাবে দেশে এটাই প্রথম গ্রিন অফিস ভবন।’

কাগজবিহীন কার্যক্রমও বাস্তবায়ন হবে এই ভবনে। যেন সকল ধরণের অপচয় কমিয়ে আনা যায়।রিসাইকেল অথবা পুনরায় ব্যবহারযোগ্য স্টেশনারী দ্রব্যাদি ব্যবহার করার পাশাপাশি যা একবার ব্যবহার করা যায়, এমন জিনিসের ব্যবহারও ৭৫% কমিয়ে আনা হবে গ্রিন ভবনে। দক্ষ বিদ্যুৎ এবং উন্নত যানবাহন ব্যবস্থাপনা থাকবে সেখানে।

    Print       Email

You might also like...

3beacdcde2a669c2103e83ce980f3dd9-5a182942ec897

মিসরে মসজিদে হামলা, নিহত ২৩৫

Read More →