Loading...
You are here:  Home  >  এক্সক্লুসিভ  >  Current Article

প্রধানমন্ত্রীকে সংবর্ধনা: সড়ক বন্ধে দুর্ভোগ

pm-620171007123805
জাতিসংঘ থেকে ফেরা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সংবর্ধনার কারণে বিভিন্ন সড়ক বন্ধ করে দেওয়ায় দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছে রাজধানীবাসীকে।

শনিবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে ঢাকার শাহজালাল বিমানবন্দরে নামার পর ভিভিআইপি লাউঞ্জে একটি সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের পর গণভবনের পথে রওনা হন শেখ হাসিনা।

রোহিঙ্গা সঙ্কটে সাহসী সিদ্ধান্ত ও উদার মনের পরিচয় দেওয়ায় শেখ হাসিনাকে সংবর্ধনা দেওয়ার ঘোষণা আগেই আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে দেওয়া হয়।

দলীয় কর্মসূচি অনুসারে আগে থেকে এই পুরোটা পথের দুই পাশে অবস্থান নেন আওয়ামী লীগ এবং এর সহযোগী বিভিন্ন সংগঠনের নেতা-কর্মীরা।

কোনো ধরনের জনদুর্ভোগ সৃষ্টি না করেই এই সংবর্ধনা দেওয়ার আশ্বাস আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের দিলেও তার প্রতিফলন দেখা যায়নি।

সকাল সাড়ে ১০টার দিকে প্রধানমন্ত্রী বিমানবন্দর থেকে রওনা হলেও তার আধা ঘণ্টা আগেই বিমানবন্দর গোলচত্বরে সড়ক আটকে দেওয়া হয়।

তখন পর্যন্ত উত্তরামুখী সড়কটি খোলা থাকলেও উত্তরা থেকে দক্ষিণ দিকে আসা যাচ্ছিল না। গাড়িগুলোকে থেমে থাকতে হয় বিমানবন্দর গোল চত্বরে।

প্রধানমন্ত্রী রওনা হওয়ার পর সড়কের দুই পাশই বন্ধ করে দেওয়া হয়।

প্রধানমন্ত্রীর গাড়িবহর পৌনে ১১টার দিকে যখন বনানী-মহাখালী অতিক্রম করছিল, তখন বিজয় সরণি পর্যন্ত সড়কের দুই পাশই ছিল পুরো ফাঁকা।

পথ বন্ধ থাকায় সাপ্তাহিক ছুটির দিনেও এই এলাকাগুলো অতিক্রমকারীদের গাড়িতে দীর্ঘ সময় অপেক্ষা করতে হয়।

কুড়িল বিশ্বরোড এবং খিলক্ষেত বাসস্ট্যান্ড এলাকায় বহু মানুষকে বাসের জন্য অপেক্ষায় দেখা গেছে।

টাঙ্গাইল যাওয়ার জন্য অপেক্ষারত আব্দুল জব্বার বলেন, “প্রায় আধা ঘণ্টা দাঁড়িয়ে আছি। কোনো গাড়ি আসছে না।”

টঙ্গী থেকে মহাখালী কর্মস্থলে যাওয়ার জন্য অপেক্ষারত তানজির আরেফিন বলেন, “সকাল ৯টা ২০ মিনিট থেকে অপেক্ষা করছি। অফিস ১০টায়, কিন্তু কখন যেতে পারব, বুঝতে পারছি না।”

ক্ষমতাসীন দলের কর্মসূচি সম্পর্কে তিনি বলেন, “প্রধানমন্ত্রীকে সংবর্ধনা দেওয়া হবে, ভালো কথা। কিন্তু সেটা নির্দিষ্ট একটা জায়গায় দিলে আমাদের ভোগান্তি হয় না।”

সাড়ে ১০টার দিকে রাস্তার দুই পাশেই গড়ি না পেয়ে অনেককে হেঁটে যাতায়াত করতে দেখা গেছে।

বিমানবন্দর থেকে বেরিয়ে প্রধানমন্ত্রীর গাড়িবহর কুড়িল বিশ্বরোড, বনানী, মহাখালী, জাহাঙ্গীর গেট, বিজয় সরণি হয়ে গণভবনে যায়। রাস্তার দুই পাশেই বিভিন্ন প্ল্যাকার্ড, ব্যানার, ফেস্টুন নিয়ে দলীয় নেতা-কর্মীরা প্রধানমন্ত্রীকে শুভেচ্ছা জানান।

সকাল ১১টায় প্রধানমন্ত্রীর গাড়িবহর গণভবনে ঢোকার পর সড়কগুলো খুলে দেওয়া হলেও ঘণ্টাখানেক বন্ধ থাকায় লেগে ছিল যানজট।

    Print       Email

You might also like...

3a7a150a35f554d47419547012050474-59edfbe70c94e

সোহেল তাজের স্যুটকেসের তালা ভাঙা এয়ারপোর্টে

Read More →