Loading...
You are here:  Home  >  ধর্ম-দর্শন  >  Current Article

ভারতে পালানোর সময় রাকেশ গ্রেপ্তার, ৪ দিনের রিমান্ড

rakesh
ভারতে পালিয়ে যাওয়ার সময় সীমান্ত থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে সিলেটের রাকেশ রায়কে। তথ্যপ্রযুক্তি আইনে রাকেশের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের পর থেকে তিনি পলাতক ছিলেন। পুলিশ তাকে হন্য হয়ে খুঁজছিল। অবশেষে গতকাল ভোরে পুলিশ অবৈধভাবে ভারত পাড়ি জমানোর সময় তাকে গ্রেপ্তার করে।
গতকাল দুপুরে তাকে আদালতে হাজির করে চারদিনের রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ। গ্রেপ্তারকৃত রাকেশ রায় হিন্দু মহাজোটের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক। এছাড়া কয়েকটি মানবাধিকার সংগঠনের কর্মী হিসেবে সিলেটে পরিচিত ছিলেন। রাকেশ সিলেট নগরীর মীর্জা জাঙ্গাল এলাকার বাসিন্দা। তবে তার মূল বাড়ি জকিগঞ্জ উপজেলায়। মানবাধিকার সংগঠনের কর্মী হিসেবে সক্রিয় থাকায় বিভিন্ন মহলের কাছে রাকেশ দীর্ঘদিন ধরে পরিচিত। ফেসবুকে মহানবী (সা.) ও প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে অশালীন মন্তব্য করে পোস্ট দিয়ে ধর্ম অবমাননার অভিযোগ এনে তার বিরুদ্ধে গত ৬ই জুন পৌর এলাকার পঙ্গবট গ্রামের ফুজায়েল আহমদ বাদী হয়ে তথ্যপ্রযুক্তি আইনের ৫৭(২) ধারায় মামলা দায়ের করেন। একই সঙ্গে রাকেশের গ্রেপ্তার দাবিতে উত্তপ্ত হয়ে উঠে জকিগঞ্জ। গঠন করা হয় জকিগঞ্জ ইসলামি ঐক্য পরিষদ। ধারাবাহিক কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়। আর ফেসবুকের কল্যাণের তার পোস্টটিও ভাইরাল হয়ে যায়। মামলার পর আত্মগোপনে চলে যায় রাকেশ রায়। গতকাল ভোরে রাকেশ জৈন্তাপুরের সীমান্তবর্তী লালাখাল সীমান্ত দিয়ে ভারত পালানোর চেষ্টাকালে পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে। জকিগঞ্জ থানার এসআই ইমরোজ তারেক জানিয়েছেন, রাকেশকে গ্রেপ্তারের পরপরই জৈন্তাপুর থেকে জকিগঞ্জ থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে তাকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। এদিকে রাকেশ রায়কে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য চার দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। সিলেটের এডিশনাল এসপি সুজ্ঞান চাকমা জানিয়েছেন- রাকেশ রায়কে গ্রেপ্তারের পর জকিগঞ্জ সিনিয়র জুডিসিয়্যাল ম্যজিস্ট্রেট আদালতে রিমান্ড আবেদন করে পুলিশ। এসময় আদালতের বিচারক খায়রুল আমিন তার চারদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সা.)কে নিয়ে যে আইডি থেকে মন্তব্য করা হয়েছে সেই আইডির বিষয়ে খোঁজ নেওয়া হচ্ছে। এ ব্যাপারে তদন্ত চলছে, তদন্ত শেষে ব্যবস্থা নেয়া হবে। পাশাপাশি এর আগে রাকেশ রায় কয়েক দিন আগে আবদুল আজিজ নামে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে ফেসবুক আইডি হ্যাকের অভিযোগে মামলা করেছিল। পুলিশ ওই ব্যক্তির মোবাইল ও রাকেশ রায়ের মোবাইল জব্দ করেছে। মোবাইল দুটি ফরেনসিক পরীক্ষার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।
মাদানী কাফেলার দাবি: ইসলাম ধর্ম ও বিশ্বনবী হজরত মুহাম্মদ (স.)কে নিয়ে কটূক্তিকারী হিন্দু মহাজোটের সিলেট বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক রাকেশ রায়ের দৃষ্ঠান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন মাদানী কাফেলা বাংলাদেশ। সংগঠনের উপদেষ্টা অধ্যক্ষ আব্দুর রহমান সিদ্দিকী, মাওলানা শিব্বির আহমদ, সভাপতি মাওলানা রুহুল আমীন নগরী, সেক্রেটারি মাওলানা সালেহ আহমদ শাহবাগী, সিলেট জেলা আহ্বায়ক হাফেজ মাওলানা মাসউদ আজহার, সিলেট মহানগর আহ্বায়ক হাফেজ শিব্বির আহমদ রাজি এক বিবৃতিতে বলেন, ‘রাকেশ রায় ফেসবুকে ইসলাম ধর্ম নিয়ে যে অবমাননাকর কথা লিখেছে তা অমার্জনীয়। আমরা অবিলম্বে দ্রুত বিচার আইনে তার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাচ্ছি। একই সঙ্গে গোলাপগঞ্জের নওমুসলিম আব্দুল আজীজের নিশর্ত মুক্তির দাবি জানিয়েছেন তারা।

    Print       Email

You might also like...

DSC_1411-bg20170920182756

রোহিঙ্গা নির্যাতন সিলেট-টেকনাফ রোডমার্চ বৃহস্পতিবার

Read More →