Loading...
You are here:  Home  >  বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি  >  Current Article

শ্রীমঙ্গলে বিরল প্রজাতির বনরুই উদ্ধার

Bonrui

মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলের লোকালয়ে ধরা পড়েছে বিরল প্রজাতির বনরুই। বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ বন্য প্রাণী সেবা ফাউন্ডেশন এটিকে উদ্ধার করেছে।
জানা যায়: বৃহস্পতিবার সকালে স্থানীয় শিমুল দেব বনরুইটিকে সবজি খেতের জালে আটকে থাকতে দেখেন। পরে সেটিকে উদ্ধার করে নিজের বাড়িতে নিয়ে যান। সেখানে তার পরিচর্যা করেন।
বন্য প্রাণী সেবা ফাউন্ডেশনের পরিচালক সজল দেব বলেন, খবর পেয়েই আমরা ঘটনাস্থলে ছুটে যাই। এলাকাবাসী আমাদের হাতে বনরুইটি তুলে দেন। প্রাণিটির পেছনের পা দুটিতে সামান্য সমস্যা হয়েছে। বনরুইটিকে চিকিৎসা শেষে লাউয়াছড়া বনে ছেড়ে দেয়া হবে বলে তিনি জানান।
বন্য প্রাণী সেবা ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান সিতেশ রঞ্জন দেব বলেন, বনরুই বর্তমানে খুবই বিরল প্রজাতির একটি প্রাণি। এটি এক ধরনের স্তন্যপায়ী সরীসৃপ বন্য প্রাণী। ইংরেজিতে বন্য প্রাণীটিকে চায়নিজ পেনগলিন বলা হয়।
প্রতিদিনের মতো আজ বৃহস্পতিবার সকালে ঘুম থেকে উঠে হাঁটতে বের হন শিমুল দেব। মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল উপজেলার ইছবপুর গ্রামের এই শিক্ষার্থী হাঁটতে হাঁটতে চলে যান খেতের দিকে। সবজিখেতে জালের মধ্যে কী একটা দেখতে পান। কাছে গিয়ে দেখতে পান, এটি একটি বনরুই।
বুধবার রাতে বেশ ঝড়বৃষ্টি হয় ইছবপুর গ্রামে। এর কারণেই খেতের জালে আটকে যায় বনরুইটি। এতে আহতও হয় বিপন্ন এই প্রাণী।
রুই মাছের মতো সারা শরীরে আঁশ থাকায় এটি ‘বনরুই’ নামে পরিচিত। বনরুই গহিন বনে ১০-১৫ ফুট গভীর সুড়ঙ্গ করে বসবাস করে। এরা নিশাচর ও লাজুক প্রকৃতির। গভীর রাতে খাবারের খোঁজে সুড়ঙ্গ থেকে বাইরে বেরোয়। আবার ভোরের আগেই সুড়ঙ্গে ঢুকে যায়। পিঁপড়া, পিঁপড়ার ডিম ও উইপোকা বনরুইয়ের প্রধান খাবার। বনরুই বছরে একবার বাচ্চা দেয়। এর পায়ের নখ ও পাতা খুবই শক্তিশালী। এরা রাতে দ্রুত চলাচল করতে পারে।
Bonrui1

    Print       Email

You might also like...

10139_168

হাওরের সৌন্দর্যে মুগ্ধ পর্যটকরা

Read More →