Loading...
You are here:  Home  >  এক্সক্লুসিভ  >  Current Article

স্কার্ট কিংবা খাটো পোশাক পড়া উচিৎ নয় : আকিল মালিক খোলামেলা কাপড়, মঞ্চে উঠে গওহারকে থাপ্পড়

binoসোমবার রাতে ছিলো বলিউডে স্টার টিভিতে ইন্ডিয়ান র-স্টার এর গ্র্যান্ড ফিনালে অনুষ্ঠান। ঝাঁক জমক পূর্ণ এই অনুষ্ঠান তখন লাইভ দেখানো হচ্ছিলো। মঞ্চে উপস্থিত হলেন মুসলিম প্রেজেন্টার গওহার। পড়নে আট সাট টাইট ও খোলা মেলা দামী গাউন।
অনুষ্ঠান স্থলে তখন ২৫০০০ দর্শক উপস্থিত, আছেন ৭০জন নিরাপত্তা রক্ষী। তার উপর স্টার টিভির নিজস্ব নিরাপত্তা বাহিনীও ছিলো। এমন টাইট সিকিউরিটি ভেদ করে আকিল মালিককে দেখা গেলো মঞ্চে উঠে যেতে। তিনি আস্তে ধীরে মঞ্চে উঠেই প্রেজেন্টার গওহারের গালে চড় দিলেন বসিয়ে আর বলতে লাগলেন, একজন মুসলিম নারী হয়ে আট সাট খোলামেলা পোশাক পরিধানের জন্য তিনি চড় মেরেছেন। অবশ্য নিরাপত্তা রক্ষীদল তাকে ধরে ফেলেন এবং পুলিশে সোপর্দ করেন।
চড় খেয়ে গওহার কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। তাকে ঘিরে ধরেন উপস্থিত তার টিম ও স্টার টিভির লোকজন। তিনি অনুষ্ঠান মঞ্চ থেকে বের হয়ে যান নিরাপত্তা রক্ষীদের সাথে। অনেক চেষ্টার পর তাকে শান্ত করে প্রায় এক ঘন্টা দেরীতে আবার তিনি মঞ্চে ফিরে এলে অনুষ্ঠান চলতে থাকে যথারীতি।
স্কার্ট কিংবা খাটো পোশাক পড়া উচিৎ নয় : আকিল মালিক
ভারতীয় দৈনিক মিড-ডে বলছে, ২৪ বছর বয়সী আকিল মালিককে নিজের এই কাণ্ডে মোটেও বিব্রত কিংবা অনুতপ্ত বলে মনে হয়নি। বরং নিরাসক্ত ভঙ্গিতে দেওয়া বিবৃতিতে মালিক বলেন, খাটো পোশাক পড়ে যেসব নারীরা পুরুষদের ‘মাথা নষ্ট’ করে দেয় এবং ধর্ষণের মতো অপরাধ করতে বাধ্য করে তাদের হাত থেকে নিজেকে এবং অন্য তরুণদের রক্ষা করতেই তিনি এই কাজ করেন।
তিনি আরও বলেন, “অভিনেত্রীরা সমাজের প্রতিনিধি। তাদের স্কার্ট কিংবা খাটো পোশাক পড়া উচিৎ নয়। কারণ এতে তরুণরা তাদের প্রতিভাবে শারীরিকভাবে আকৃষ্ট হয়। আজকাল অপ্রাপ্তবয়স্ক ছেলেরাও ধর্ষণ এবং যৌন উৎপীড়ণের মতো অপরাধ করছে। এবং তারা পকেটে অভিনেত্রীদের অশ্লীল ছবি নিয়ে ঘোরে। অভিনেত্রীরা যদি সংক্ষিপ্ত পোশাক পড়া বন্ধ করে তাহলে অপরাধ কমে যাবে এবং একটি উন্নত সমাজের দিকে আমরা এগিয়ে যাবো।”
আকিল মালিক পেশায় একজন জুনিয়র আর্টিস্ট। সংগীতভিত্তিক রিয়েলিটি শো ‘ইন্ডিয়াস র স্টার’-এর সেটে তিন দিন ধরে কাজ করছিলেন তিনি। এই অনুষ্ঠানেই উপস্থাপিকা হিসেবে ছিলেন গওহার।
পুলিশকে আকিল জানান, তিন দিন ধরে গওহারকে খোলামেলা পোশাকে চলাফেরা করতে দেখে তার প্রতি শারীরিকভাবে আকৃষ্ট বোধ করছিলেন আকিল, কিন্তু নিজেকে সামলে নেন। অবশেষে তৃতীয় দিন অর্থাৎ অনুষ্টানের চূড়ান্ত পর্বের শুটিং চলাকালে গওহারকে তিনি প্রথমে বোঝানোর চেষ্টা করেন যে তাদের ধর্মে এ ধরনের পোশাক পরা অনুমোদিত নয়। কিন্তু বাক-বিতণ্ডা শুরু হওয়ায় আড়াই হাজার দর্শক এবং ২৫০ জন নিরাপত্তাকর্মীর সামনে গওহারকে চড় মারেন তিনি।
এছাড়া তার বিরুদ্ধে গওহারকে অভদ্রভাবে স্পর্শ করারও অভিযোগ আনা হয়েছে। এরই মধ্যে তাকে আদালতে হাজির করা হয়েছে এবং আদালত তাকে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত হেফাজতে রাখার নির্দেশ দিয়েছেন।
পুলিশ বলছে, চলতি বছরের অগাস্টে আবুধাবি থেকে মুম্বাইতে আসেন আকিল। আবু ধাবিতে বেয়ারা হিসেবে কাজ করতেন তিনি। মুম্বাইতে গাড়িচালক হিসেবে কাজ নেন আকিল। পাশাপাশি জুনিয়র আর্টিস্ট হিসেবে ফিল্ম সিটিতে কাজ করছেন। ভবিষ্যতে অভিনেতা হওয়ার ইচ্ছা আছে তার।

    Print       Email

You might also like...

102152

সিলেটে যাত্রা শুরু ‘হাইক ফ্যাশন ও ফুড কার্নিভাল’র

Read More →