Loading...
You are here:  Home  >  দেশ জুড়ে  >  Current Article

প্রবাসীদের জন্য গৃহঋণ সুবিধা ২৫ শতাংশ বেড়েছে

আবাস42302641aff1db4dd2bc0831f6f53074ন খাতে মন্দাভাব দূর করতে এবং রেমিট্যান্স প্রবাহ বাড়াতে সম্প্রতি বাংলাদেশী প্রবাসীদের জন্য গৃহঋণ সুবিধা ২৫ শতাংশ বাড়িয়ে ৭৫ শতাংশ করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। অর্থনীতিবিদরা মনে করছেন, এটি আবাসন খাতে বিনিয়োগকে উৎসাহিত করলেও রেমিট্যান্স প্রবাহে গতি ফেরাতে কতটা কার্যকরী ভূমিকা রাখবে তা নিয়ে রয়েছে সংশয়। আর, একজন ব্যক্তি সর্বোচ্চ কত টাকা ঋণ নিতে পারবেন, তার সীমা নির্ধারণ করে দেয়াকে অযৌক্তিক মনে করছেন তারা।

দেশের জিডিপিতে রেমিটেন্স বা প্রবাসী আয়ের অবদান প্রায় ১২ শতাংশ। তবে, গেল অর্থবছরে অন্যতম এ খাতে আয় কমেছে প্রায় সাড়ে ১৪ শতাংশ। প্রবাসীরা পাঠিয়েছেন মোট ১ হাজার ২৭৬ কোটি ডলার। যা গেল পাঁচ বছরের মধ্যে সর্বনিম্ন।

এদিকে বেশ কয়েকবছর যাবৎ মন্দা ভাব আবাসন খাতেও। এ খাতে বিক্রি কমেছে ৮০ শতাংশ। আর নতুন প্রকল্প গ্রহণের হার কমেছে প্রায় ৯০ শতাংশ।

আবাসন ও প্রবাসী আয়, এ দুই খাতে ইতিবাচক ধারা ফিরিয়ে আনতে সম্প্রতি বাংলাদেশ ব্যাংক বাড়িয়েছে প্রবাসীদের জন্য গৃহঋণ সুবিধা। অর্থাৎ প্রবাসী কোন বাংলাদেশী দেশে বাড়ি নির্মাণ বা ফ্ল্যাট কিনতে চাইলে পাবেন মোট খরচের ৭৫ শতাংশ ঋণ। যেটি আগে ছিল ৫০ শতাংশ। আগের চেয়ে ২৫ শতাংশ ঋণ সুবিধা বাড়ানোকে বেশ উল্লেখযোগ্য হিসেবেই দেখছেন অর্থনীতিবিদরা।

তবে, অর্থনীতিবিদ ড. জাহিদ হোসেন মনে করেন উদ্যোগটি আবাসন খাতকে উৎসাহিত করলেও রেমিটেন্স প্রবাহ বাড়াতে কতটা সহায়ক হবে তা নিয়ে রয়েছে সংশয়। তবে, যদি নতুন বিনিয়োগকারীদের সংখ্যা বাড়ে সেক্ষেত্রে প্রবাসী আয়ে গতি বাড়তে পারে।

প্রায় একই অভিমত পিআরআই এর নির্বাহী পরিচালকেরও। তবে ৭৫ শতাংশ ঋণের কথা বলার পরও এক কোটি ২০ লাখ টাকা পর্যন্ত যে ঋণ সীমা নির্ধারণ করে দেয়া হয়েছে সেটিকে অযৌক্তিক মনে করছেন তিনি।

যারা দেশে থাকেন তারা গৃহঋণ নিতে পারেন মোট ব্যয়ের ৭০ শতাংশ।

    Print       Email

You might also like...

Mufti-news-bg20171122232853

Read More →